Tuesday 1st of December, 2020 | 2:26 AM

আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প

সহিদুল ইসলাম খোকন
  • সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প
আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প
আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প
আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প

আদর্শ স্ত্রীর শিক্ষণীয় গল্প

সহিদুল ইসলাম খোকন

হাসান বসরী (রহ.) বলেছেন:
-আমি মক্কার বাজারে গেলাম।কাপড় কিনতে। দোকানদার শুরু থেকেই কাপড়ের প্রশংসা করতে শুরু করলো।ক্ষণে ক্ষণে শপথ করে বলতে লাগলো:
তার কাপড়ই বাজারের সেরা,ইত্যাদি।
আমি কাপড় না কিনেই দোকান থেকে বেরিয়ে এলাম।এমন লোকের কাছ থেকে কিছুকেনা নিরাপদ নয়।
দুই বছর পর আবার হজে গেলাম।আবার কাপড় কিনতে গেলাম।অদূরে দাঁড়িয়ে লোকটার প্রতি লক্ষ রাখলাম।নাহ, আগের মতো প্রশংসা-শপথ কোনওটাই করছে না।ক্রেতা নিজের পছন্দ মতো
কেনাকাটা করছে।
আমি এগিয়ে গেলাম।জানতে চাইলাম:.-তুমি কি অমুক লোক নও?-জ্বি।-তাহলে তোমার এই পরিবর্তনের কারণ কী?তখন আমার ঘরে প্রথম স্ত্রী ছিল।আমি যদি সন্ধ্যায় অল্প টাকা নিয়ে ফিরতাম সে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে আমার রাতটাকে মাটি করে দিত।আর যত বেশি টাকাই নিয়ে যেতাম,
তার চোখে লাগত না।আরও বেশি কেন রুজি
করলাম না,তা নিয়ে উঠতে-বসতে খোঁটা শুনতে হতো।তার বাপের বাড়ির দোহাই দিত!-তারপর?
-আল্লাহ আমার দিকে ফিরে তাকিয়েছেন।আমার প্রথম স্ত্রী মারা গেছে।আমি দ্বিতীয় বিয়ে করেছি।
বিয়ের পরদিন বাজারে আসছি,বউ পেছন থেকে আমার জামা টেনে গতি রোধ করে বললো:
-শুনুন……..!আল্লাহকে ভয় করে চলবেন। আমাদেরকে হালাল খাওয়াবেন।গুনাহ করে বেশি কামানোর প্রয়োজন নেই।আপনি হালাল পথে কম
রোজগার নিয়ে এলেও,সেটাকে আমি পরমসমাদরে
অনেক বেশি মনে করবো।আপনি যদি কিছু না নিয়েই রাতে ফেরেন,সেটাই আল্লাহর ফয়সালা বলে,খালি পেটে ঘুমিয়ে পড়বো।তবুও হারামের পথে যাবেন না।
২.
হাজেরার মৃত্যুর পর ইবরাহীম (আঃ) যখন ইসমাঈলকে দেখতে যান, তখন তার স্ত্রীকে কুশলাদি জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন,‘আমরা খুব অভাবে ও কষ্টের মধ্যে আছি’।জবাবে তিনি বলেন,তোমার স্বামী এলে তাকে আমার সালাম দিয়ে বলো যে,তিনি যেন দরজার চৌকাঠ পাল্টে ফেলেন’।পরে ইসমাঈল বাড়ী ফিরলে ঘটনা শুনে বলেন
উনি আমার আব্বা এবংতিনি তোমাকে তালাক
দিতে বলেছেন।
ফলে ইসমাঈল স্ত্রীকে তালাক দেন ও অন্য স্ত্রী গ্রহণ করেন!
পরে একদিন পিতা এসে একই প্রশ্ন করলে স্ত্রী বলেন,আমরা ভাল ও সচ্ছলতার মধ্যে আছি এবং তিনি আল্লাহর প্রশংসা করেন।
ইবরাহীম তাদের সংসারে বরকতের জন্য আল্লাহর
নিকট প্রার্থনা করলেন।অতঃপর তাকে বলেন,
তোমার স্বামী ফিরলে তাকে বলো যেন দরজার চৌকাঠ ঠিক রাখেন ও মযবূত করেন’।ইসমাঈল ফিরে এলে ঘটনা শুনে তার ব্যাখ্যা দেন ও বলেন,
উনি আমার পিতা।তোমাকে স্ত্রীত্বে বহাল রাখার
নির্দেশ দিয়ে গেছেন।
গল্প দুটি থেকে আমরা শিখতে পারি যে,স্বামীর জীবিকার উপর স্ত্রীর প্রভাব অনেক।স্ত্রী যেমন স্বামীকে হারাম রাস্তায় ঠেলে দিতে পারে,তেমনি পারে হারাম থেকে বাঁচাতে।
একারণেই ইবরাহিম (আ)তার ছেলে ইসমাইল (আ)এর স্ত্রীকে দরজার চৌকাঠেরসাথে তুলনা করে চৌকাঠ বদলে ফেলতে বলেছিলেন।
ঘরের দরজায় যদি শক্ত চৌকাঠ না থাকে,তবে তাতে সহজেই চোর ডাকাত ঢুকতে পারে।
তেমনি স্ত্রী ঠিক না হলে পরিবারেও শয়তান সহজে ঢুকতে পারে।
আল্লাহ সবাইকে উত্তম স্ত্রী দান করুন (আমিন)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
©  2019 All rights reserved by  dailydinajpur.com
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo