Monday 24th of February, 2020 | 12:16 PM

দিনাজপুরে বিয়েতে পেঁয়াজ উপহার দিয়ে ‘উকিল বাবা’ কাউন্সিলর

ডেস্ক রিপোর্ট
  • Sunday, November 17, 2019,
  • 187 Time View

কুমিল্লা ও নারায়ণগঞ্জে বৌ-ভাত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে পেঁয়াজ দেয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার দিনাজপুরে বিয়ের অনুষ্ঠানে নবদম্পতিকে ‘পেঁয়াজ কলি’ উপহার দেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জেলার বিরল উপজেলার কলেজপাড়ার বাসিন্দা আইয়ুব আলীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। বিরল পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান বিয়ের উপহার হিসেবে নবদম্পতিকে ‘পেঁয়াজ কলি’ দিয়েছেন। পেঁয়াজ উপহার দেয়ায় বর-কনের আবদারে কাউন্সিলর হাফিজুর রহমানকে বিয়েতে ‘উকিল বাবা’ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুরো বিরল উপজেলায় আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) ছিল বিরল উপজেলার কলেজপাড়ার বাসিন্দা আইয়ুব আলীর ছেলে রায়হান আলীর সঙ্গে সদর উপজেলার রানীগঞ্জ গ্রামের মাঈনুদ্দিনের মেয়ে মিতু আকতারের বিয়ের দিন। বিয়ের অনুষ্ঠানে মিষ্টির পরিবর্তে পেঁয়াজ নিয়ে হাজির হন কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান।

বিষয়টি দেখে অবাক হন উপস্থিত সবাই। অনুষ্ঠানে পেঁয়াজ উপহার নিয়ে আসায় বর-কনের আবদারে কাউন্সিলর হাফিজুর রহমানকে বিয়েতে ‘উকিল বাবা’ করা হয়। ‘উকিল বাবা’ হওয়ায় অনেক খুশি হন কাউন্সিলর।

এদিকে, শনিবার সন্ধ্যায় ছিল ওই বিয়ের বৌ-ভাত অনুষ্ঠান। সেখানে ‘পেঁয়াজ কলি’ নিয়ে হাজির হন কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান। বৌ-ভাত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে বর-কনের হাতে ‘পেঁয়াজ কলি’ তুলে দেন কাউন্সিলর হাফিজুর।

বৌ-ভাত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে অনেক কিছু পাওয়া গেলেও দিনাজপুরে প্রথম কোনো বিয়েতে পেঁয়াজ ও ‘পেঁয়াজ কলি’ উপহার বিনিময় হওয়ায় বিষয়টি বেশ আলোচিত।

জানতে চাইলে বর রায়হান আলী বলেন, পেঁয়াজ ও ‘পেঁয়াজ কলি’ উপহারের বিষয়টি আমাদের বিয়েতে বাড়তি আমেজ তৈরি করেছিল। কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান আমাদের বিয়েতে পেঁয়াজ উপহার নিয়ে আসায় তাকে ‘উকিল বাবা’ নিযুক্ত করেছি। এতে আমরা যেমন খুশি হয়েছি তেমনি কাউন্সিলরও অনেক খুশি হয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর মো. হাফিজুর রহমান বলেন, বিয়েতে মিষ্টি নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু মিষ্টির কেজি ১৮০ টাকা আর পেঁয়াজের কেজি ২৫০ টাকা। যেহেতু দেশে এখন পেঁয়াজের সংকট চলছে, পেঁয়াজ নিয়ে সর্বত্র চলছে সমালোচনা সেহেতু ভাবলাম বিয়েতে পেঁয়াজ নিয়ে গেলে একটু বেশি সম্মান পাব। এতে উপকৃত হবে নবদম্পতি। তাই মিষ্টির পরিবর্তে শুক্রবার বিয়ের অনুষ্ঠানে পেঁয়াজ নিয়ে যাই। পেঁয়াজ নিয়ে যাওয়ায় বিয়েতে আমাকে ‘উকিল বাবা’ নিযুক্ত করা হয়। পরদিন শনিবার বৌ-ভাত অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে নবদম্পতিকে ‘পেঁয়াজ কলি’ উপহার দেই।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
©  2019 All rights reserved by  dailydinajpur.com
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo