Monday 30th of November, 2020 | 5:40 PM

বজ্রপাতে করণীয়; সতর্কতা ও সাবধানতা

আব্দুল্লাহ আল হুসাইন
  • বুধবার, ১০ জুন, ২০২০

বজ্রপাতে করণীয়; সতর্কতা ও সাবধানতা

-আব্দুল্লাহ আল হুসাইন

আলহামদুলিল্লাহ,আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীকে বৈচিত্র্যময় করে সৃষ্ঠি করেছেন, সেরকম একটি হলো বজ্রপাত। বজ্রপাতে প্রতিবছর অসংখ্য মানুষ মারা যায়, বিশেষ করে বিগত কয়েকবছর ধরে এর হার আশংকা জনক হারে বেড়ে গেছে, বজ্রপাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আল্লাহর কাছে সাহায্য ছাড়া আমাদের আর কোন উপায় নেই, তিনি আমাদের সাহায্য না করলে, আমরা যে কোন সময় এ বিপদের সম্মুখীন হতে পারি।

তবে আমরা সতর্কতার জন্য কিছু পদক্ষেপ বা কাজ করতে পারি, কারণ আল্লাহ তায়ালা বলছেন তোমরা চেষ্টা করো, আমি অবশ্যই তার ফল দিবো। চলুন আমরা বজ্রপাত থেকে বাঁচতে সতর্কতা মূলক কি কি পদক্ষেপ নেয়া যায় তা জেনে নেই। বজ্রপাত থেকে রক্ষা পেতে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর ২০টি জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে। নির্দেশনাগুলো হলো-

১. বজ্রপাতের ও ঝড়ের সময় বাড়ির ধাতব কল, সিঁড়ির ধাতব রেলিং, পাইপ ইত্যাদি স্পর্শ করবেন না।

২. প্রতিটি বিল্ডিংয়ে বজ্র নিরোধক দণ্ড স্থাপন নিশ্চিত করুন।

৩. খোলাস্থানে অনেকে একত্রে থাকাকালীন বজ্রপাত শুরু হলে প্রত্যেকে ৫০ থেকে ১০০ ফুট দূরে দূরে সরে যান।

৪. কোনো বাড়িতে যদি পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না থাকে তাহলে সবাই এক কক্ষে না থেকে আলাদা আলাদা কক্ষে যান।

৫. খোলা জায়গায় কোনো বড় গাছের নিচে আশ্রয় নেয়া যাবে না। গাছ থেকে চার মিটার দূরে থাকতে হবে।

৬. ছেঁড়া বৈদ্যুতিক তার থেকে দূরে থাকতে হবে। বৈদ্যুতিক তারের নিচ থেকে নিরাপদ দূতত্বে থাকতে হবে।

৭. ক্ষয়ক্ষতি কমানোর জন্য বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির প্লাগগুলো লাইন থেকে বিচ্ছিন্ন রাখতে হবে।

৮. বজ্রপাতে আহতদের বৈদ্যুতিক শকে মতো করেই চিকিৎসা দিতে হবে।

৯. এপ্রিল-জুন মাসে বজ্রপাত বেশি হয়। এই সময়ে আকাশে মেঘ দেখা গেলে ঘরে অবস্থান করুন।

১০. যত দ্রুত সম্ভব দালান বা কংক্রিটের ছাউনির নিচে আশ্রয় নিন।

১১. বজ্রপাতের সময় বাড়িতে থাকলে জানালার কাছাকাছি বা বারান্দায় থাকবেন না এবং ঘরের ভেতরে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম থেকে দূরে থাকুন।

১২. ঘন-কালো মেঘ দেখা গেলে অতি জরুরি প্রয়োজনে রাবারের জুতা পরে বাইরে বের হতে পারেন।

১৩. উঁচু গাছপালা, বৈদ্যুতিক খুঁটি, তার, ধাতব খুঁটি ও মোবাইল টাওয়ার ইত্যাদি থেকে দূরে থাকুন।

১৪. বজ্রপাতের সময় জরুরি প্রয়োজনে প্লাস্টিক বা কাঠের হাতলযুক্ত ছাতা ব্যবহার করুন।

১৫. বজ্রপাতের সময় খোলা জায়গা, মাঠ বা উঁচু স্থানে থাকবেন না।

১৬. কালো মেঘ দেখা দিলে নদী, পুকুর, ডোবা, জলাশয় থেকে দূরে থাকুন।

১৭. বজ্রপাতের সময় শিশুদের খোলা মাঠে খেলাধুলা থেকে বিরত রাখুন এবং নিজেরাও বিরত থাকুন।

১৮. বজ্রপাতের সময় খোলা মাঠে থাকলে পায়ের আঙুলের ওপর ভর দিয়ে এবং কানে আঙুল দিয়ে মাথা নিচু করে বসে পড়ুন।

১৯. বজ্রপাতের সময় গাড়ির মধ্যে অবস্থান করলে, গাড়ির থাতব অংশের সঙ্গে শরীরের সংযোগ ঘটাবেন না। সম্ভব হলে গাড়িটিকে নিয়ে কোনো কংক্রিটের ছাউনির নিচে আশ্রয় নিন।

২০. বজ্রপাতের সময় মাছ ধরা বন্ধ রেখে নৌকার ছাউনির নিচে অবস্থান করুন।

আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিন আমাদের সকলকে বজ্রপাত থেকে হেফাজত করুক। আমিন!

লেখকঃ আব্দুল্লাহ আল হুসাইন, সাধারণ সম্পাদক, পঞ্চগড় জেলা ছাত্রকল্যাণ পরিষদ,দিনাজপুর সরকারি কলেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
©  2019 All rights reserved by  dailydinajpur.com
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
ThemesBazar-Jowfhowo